প্রধান কার্যক্রম

সোসাইটি কর্তৃক পরিচালিত প্রধান প্রধান কার্যক্রম

বাংলাদেশ কুরআন শিক্ষা সোসাইটি তার মিশন ও ভিশনকে সামনে রেখে স্থায়ী কর্মসূচীর আলোকে বিভিন্নমুখী কার্যক্রম পরিচালনা করছে।

কুরআন ভিত্তিক আলোচনা সভা

সোসাইটির প্রতিনিধি ও সদস্যগণ মসজিদে, অফিসে, বাসায় বা অন্য কোনো সুবিধাজনক স্থানে নিয়মিত ও অনিয়মিত ভাবে কুরআন নিয়ে আলোচনা সভা করেন, তফসির করেন, দারস বৈঠক করেন, কুরআন ক্লাস পরিচালনা করেন, কুরআনের আসর করেন এবং কুরআন শিক্ষার অনুষ্ঠান করে থাকেন।


কুরআন ভিত্তিক টট্ (TOT) ক্লাস

সোসাইটি তার প্রতিষ্ঠা লগ্ন থেকেই কুরআন বুঝার ও বুঝানোর উপযুক্ত শিক্ষক তৈরির উদ্দেশ্যে TOT (Training of Trainers) জাতীয় প্রোগ্রাম পরিচালনা করে আসছে। আলহামদুলিল্লাহ, এ কাজে নারী পুরুষ সকলের মধ্যেই ব্যাপক আগ্রহ লক্ষ্য করা যায়।


কুরআনের ভাষায় কুরআন বুঝা কোর্স

বাংলাদেশ কুরআন শিক্ষা সোসাইটি এ যাবত সেমিনার, আলোচনা সভা ও বই পুস্তকের মাধ্যমে সাধ্যমত কুরআনের আলো ছড়িয়ে দেয়ার কাজ করে আসছিল। আলহামদুলিল্লাহ, ২০১০ সাল থেকে সোসাইটি

"কুরআনের ভাষায় কুরআন বুঝা"

কোর্স চালু করার এক সাহসী পদক্ষেপ নিয়ে আধুনিক শিক্ষিতদের সরাসরি আরবি ভাষায় কুরআন বুঝার পথ উন্মুক্ত করে দিয়েছে।

এই কোর্সের উদ্দেশ্য হলো কুরআন তিলাওয়াত কালে একটি পর্যায় পর্যন্ত সরাসরি কুরআনের অর্থ ও মর্ম বুঝার যোগ্যতা অর্জন করা। ২০১৭ সালে ১৩তম ব্যাচ চলছে।

এই কোর্সে প্রতিটি ব্যাচের জন্যে তিনটি করে পর্ব থাকে। প্রতি পর্বে ৩০টি লেসন শিক্ষা দান করা হয়।


কুরআনের কাজে অবদানের জন্যে এ্যাওয়ার্ড প্রদান

যারা বিভিন্ন ক্ষেত্রে কুরআন কেন্দ্রিক কাজ করেছেন এবং করে যাচ্ছেন, সোসাইটি তাঁদের অবদানের স্বীকৃতি প্রদান ও প্রেরণা যোগানোর উদ্দেশ্যে

"কুরআন শিক্ষা সোসাইটি এ্যাওয়ার্ড"

চালু কছে। সোসাইটি এ যাবত ২২জন মনীষীকে কুরআনের উপর বিভিন্ন ক্ষেত্রে অসাধারণ অবদানের জন্যে ‘কুরআন শিক্ষা সোসাইটি এ্যাওয়ার্ড’ প্রদান কছে।


শিক্ষা বৃত্তি প্রদান

দরিদ্র মেধাবী ছাত্রদের বৃত্তি প্রদানের একটি প্রকল্প ও সোসাইটি পরিচালনা করছে। ২০০৫ সাল থেকে সীমিত পরিসরে এই বৃত্তি প্রদান করা শুরু হয়েছে। নিয়মিত মাসিক বৃত্তি প্রদান করা ছাড়া ও সোসাইটি সীমিত পরিসরে ছাত্রদেরকে ভর্তি ফি, পরীক্ষার ফি, বই ক্রয় এবং চিকিত্সা বাবদ আর্থিক সহযোগিতা করে আসছে।